উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা তৈরি হচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

রোববার আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়।

 বিজ্ঞপ্তিতে চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দর এবং কক্সবাজারকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

 এদিকে রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘু চাপের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে এটি উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোসগরে ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশি উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমী বায়ুর অক্ষ ভারতের পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল হয়ে উত্তরপূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোসাগরে মাঝারী থেকে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

 আবহওয়ার পূর্বাভাসে আরো বলা হয়েছে, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর, ময়নমনসিংহ, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা এক থেকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে।

 এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় চট্টগ্রামে, ১০৪ মিলিমিটার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় কক্সবাজার জেলায় ১০২ মিলিমিটার। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল দিনাজপুরে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

 

m.ahmad