বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী রবার্ট ওয়ার্টকিনস বলেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়াই একমাত্র দীর্ঘমেয়াদি সমাধান।’ তিনি জানান, জাতিসংঘ একেই একমাত্র সমাধান হিসেবে দেখছে।

আজ রোববার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন রবার্ট ওয়ার্টকিনস।

ওয়াটকিনস বলেন, ‘এটা অনুমান করা সম্ভব নয় নিউইয়র্কে জাতিসংঘের আলোচনায় কী হবে। তবে মিয়ানমারের ব্যাপারে কী করা যেতে পারে তা সব বিষয় আলোচনা হবে। যাতে ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম এবং হত্যাযজ্ঞ থেকে মিয়ানমারকে বিরত রাখা যায়।

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়া ছাড়া অন্যকোনো সমাধান হতে পারে না বলেও জানালেন ওয়াটকিনস।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘গতকালই জাতিসংঘের মহাসচিব নতুন একটি বিবৃতি ইস্যু করেছেন। সেখানে তিনি পরিষ্কারভাবে বলেছেন, যে অং সান সু চির জন্য এটা শেষ সুযোগ (লাস্ট চান্স)। সেখানে তিনি বলেছেন, এখনই যদি এটাকে থামানো না হয় তা আওতার বাইরে চলে যাবে সমস্যা সমাধানের। তো এগুলোর মধ্যে কিন্তু কিছু বার্তা থাকে।’

শাহরিয়ার আলম আরো বলেন, ‘কফি আনানের কমিশনে যে নয় বা দশ সদস্যের কমিটি ছিল সেখানে ছয়জন ছিলেন মিয়ানমারের নাগরিক, চারজন ছিলেন বিদেশি নাগরিক। তাঁদের কিন্তু বাংলাদেশে নিয়ে দেখিয়েছি। প্রথম যে রিপোর্ট তৈরি হয়েছিল তা ড্রাফট হওয়ার পর। সে রিপোর্টে কিন্তু নাগরিকত্ব আইনে বিষয়গুলো ছিল না। আমাদের এখানে সফর করে যাওয়ার পরই তারা তা অন্তর্ভুক্ত করেন।’

এদিকে, সফররত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী জানিয়েছেন রোহিঙ্গা ইস্যুতে তিনি তাঁর অবস্থান তুলে ধরবেন সংবাদ সম্মেলনে।