সাধারণত ,মামলার পক্ষরা যাদেরকে সাক্ষী হিসেবে উপস্থাপন করে,তাদের সাক্ষ্য প্রহণ করা হয় । কিন্তু কিছু ব্যক্তি তারা মামলার পক্ষ না হওয়ার পরও বা মামলার পক্ষ দ্বারা সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য আহ্বান করা না হলেও , তাদের মতামত প্রাসঙ্গিক হতে পারে ।

এখন জানতে হবে তৃতীয় পক্ষ তারা কে বা কারা ? যে সমস্ত ব্যক্তি বিশেষ বিষয়ে পারদর্শী ,তাদের অভিমত নিতে পারে এবং সেই অভিমত প্রাসঙ্গিক হবে । তাদের এই অভিমতকে বিশরদ অভিমত বা expert opinion বলে ।

১৮৭২ সালের সাক্ষ‌্য আইনের ৪৫ধারার বিধান মতে, নিম্নোক্ত বিষয়ে বিশরদ অভিমত বা expert opinion নেয়া যাবে –
১.বিদেশি আইনের কোন প্রশ্নে
২.বিজ্ঞান বা চারুকলার প্রশ্নে
৩.হস্তলিপি বা টিপসহির সনাক্তির প্রশ্নে ।

আর ৪৭ধারা অনুসারে হস্তলিপি সম্পর্কে অভিমত যখন প্রাসঙ্গিক:
একটি দলিল কোন ব্যক্তির দ্বারা লিখিত বা সাক্ষরিত হয়েছে, সে সম্পর্কে আদালতকে যখন কোন অভিমত গ্রহণ করতে হয়, তখন যে ব্যক্তির দ্বারা সেটা লিখিত বা সাক্ষরিত হয়েছে মনে করা হয় , সেই ব্যক্তির দ্বারা উহা লিখিত বা স্বাক্ষরিত হয়েছে বা হয়নি এই মর্মে উক্ত ব্যক্তির হস্তলিপির সাথে পরিচিত লোকের অভিমত প্রাসঙ্গিক ।

 

/m.a.showdagor/